ঢাকা, বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

আবার বিশ্ববাজারে তেলের দামে বড় উত্থান

বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নতুন করে বেড়ে যাওয়া এবং লিবিয়ার তেল উত্তোলন বাড়ায় কিছুদিন আগে বিশ্ববাজারে তেলের দামে বড় দরপতন হলেও আবার বিশ্ববাজারে তেলের দামে বড় উত্থান হয়েছে। গত এক সপ্তাহে অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়েছে ৫ শতাংশের ওপর। ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম বেড়েছে প্রায় সাড়ে ৫ শতাংশ। হান্টিং অয়েলের দাম বেড়েছে সাড়ে ৬ শতাংশের ওপর।এর আগে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে অপরিশোধিত ও ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম প্রায় ১০ শতাংশ কমে যায়।


ইতিহাসের সর্বোচ্চ দরপতনের কারণে গত ২০ এপ্রিল প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ঋণাত্মক ৩৭ ডলারের নিচে নেমে যায়। রেকর্ড এই দরপতনের পরই অবশ্য তেলের দাম বাড়তে থাকে। এতে রেকর্ড দরপতনের ধকল সামলে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ৪০ ডলারের আশপাশে ঘুরপাক খাচ্ছিল। কিন্তু নভেম্বরের শুরুতে ৪০ ডলারের নিচে নেমে যায়।


এই পতনের ধকল কাটিয়ে আবার তেলের দাম বাড়তে শুরু করেছে। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম দশমিক ৪৩ ডলার বেড়ে ৪২ দশমিক ১৭ ডলারে উঠেছে। ফলে সপ্তাহের ব্যবধানে অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়েছে ৫ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। মাসের ব্যবধানে বেড়েছে ৫ দশমিক ৩৫ শতাংশ। বছরের ব্যবধানে ৩১ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ দাম কমেছে।


অপরিশোধিত তেলের পাশাপাশি দাম বেড়েছে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের। গত এক সপ্তাহে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ৫ দশমিক ৪০ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল ৪৫ দশমিক শূন্য ৯ ডলারে উঠে এসেছে। এর মাধ্যমে মাসের ব্যবধানে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ৮ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ বেড়েছে। বছরের ব্যবধানে কমেছে ৩২ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ।


অপরদিকে হান্টিং অয়েলের দাম গত এক সপ্তাহে ৬ দশমিক ৬২ শতাংশ বেড়ে ১ দশমিক ২৮ ডলারে উঠেছে। এর মাধ্যমে মাসের ব্যবধানে হান্টিং অয়েলের দাম ১২ দশমিক ৬৩ শতাংশ বেড়েছে। বছরের ব্যবধানে ৩৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ কমেছে।

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ১৫০১৮ ২৬৮০১৪৯
আক্রান্ত ২২৩০ ৪৫১৯৯০
সুস্থ ২২৬৬ ৩৬৬৮৭৭
মৃত ৩২ ৬৪৪৮

Our Facebook Page