ঢাকা, রবিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২১

'দরকার হলে কোর্টে যাবো, নিয়ম পাশ করাবো,পাবলিক প্ল্যাটফর্মে নেশা নিয়ে ভাব মারা যাবে না'- সভ্যতা

তরুণ শিল্পী কারিশমা সানু সভ্যতা বেড়ে উঠেছেন সংগীতের পরিবেশে। নিজের কথা, সুর ও গায়কী দিয়ে আলাদা পরিচিতি তৈরি করেছেন সঙ্গীতশিল্পী কারিশমা সানু সভ্যতা। 

বাবা খোদাবক্স সানু এবং ভাই-বোন সন্ধি ও স্বাগতা গানের মানুষ হলেও সভ্যতার নিজস্ব ধরণটা ভিন্নই বলা যায়।

ছোট বেলা থেকে কণ্ঠ একটু ভাঙা থাকায় ভেবেছিলেন সংগীত পরিচালনা করবেন।
গিটার বাজাতে শিখেছেন নিজে নিজেই।
কিন্তু ভিন্ন গায়কী দিয়েই গান গাওয়াও হয়ে যায় তার।
সংগীতে স্নাতকোত্তর করছেন সভ্যতা।
গান ছাড়া কিছু পারেন না বলে মনে করেন এ শিল্পী।
তবে গান নিয়ে ব্যবসা করার ইচ্ছা নেই তাঁর।
তাই নিজের গান এমনি এমনি ইন্টারনেটে দিয়ে দেন তিনি।

"যারা গান বাজনা করে তারা নেশা করে" এমন ধরনের মন্তব্য অনেকেই করে থাকেন। 
 এই কথার প্রেক্ষিতেই  সংগীতশিল্পী সভ্যতা  বলেন-
"আগেই বলে নেই, যে ই পাবলিক প্ল্যাটফর্মে গাঞ্জা, সিগারেট, মদ হাতে, লাইভে গাইবে বা যেকোন আর্ট ফর্ম প্রদর্শন করে নেশা বিষয় টা কে একটা আধ্যাত্মিক যায়গা দেয়ার চেষ্টা করবে তার পিছেই আমি লাগবো। প্রয়োজনে হাইকোর্ট যাবো। এই সব বালসাল তথাকথিত রক কালচার বলে যারা সংগীতের থেকে বেশি নেশা টা কে একটা স্টান বাজি হিসেবে দেখে তারা আমার যত আপন হোক পিছে আমি লাগবই লাগবো। 
আমরা এক জেনারেশন পার করেছি, মিউজিসিয়ান মানেই নেশা করে এই।কথা শুনে। আমি আমার পরের জেনারেশন কে এই কথা শুনতে দিব না। 

এক স্বল্প পরিসরে বিখ্যাত ব্যাক্তি, যিনি নিজেকে বাংলার জিম মরিসন মনে করেন, তিনি কিছুক্ষণ আগে লাইভে এসেছেন, সিগারেটের ধোঁয়া ছড়াতে ছড়াতে। তীব্র নিন্দা জানাই। 
এবং এভাবেই চলতে থাকলে আপনার নিজের ক্যারিয়ার ও বেশিদিন থাকবে না। যেই গলা আমাদের গাইতে সাহায্য করছে তার যত্ন নেয়া আমাদের গুরুতর দ্বায়িত্ব। 
এত্ত ম্যাজাজ খারাপ যে এর পরের সপ্তাহ থেকে ভিডিও সহ শেয়ার দিব। আপনারা আমার সাথে একমত হলে, এমন কিছু দেখা মাত্রই নিন্দা করে শেয়ার দিবেন। সম্পর্ক খারাপ হলে হবে। কিন্তু এই রকস্টার স্ক্যাম থেকে আমাদের উঠে আসার সময় হয়ে গেছে। 
সংগীত কোন খেলনা না, বা ভাবচক্করের জিনিস না। সংগীত শিল্পীর জীবন একজন ব্যাংকারের মতই। সমাজ তাকে অন্য চোখে দেখে আর এই wannabe rockstar গুলো বিষয়টাকে আরেকটু তেলে বেগুনে জ্বালিয়ে দেয়। 
নাহ আমাদের পরের জেনারেশন শুনবে না "যারা গান বাজনা করে তারা নেশা করে" 
কোনদিন ভেবেছেন এমন একটা চিন্তা একজন সাধারণ সংগীত শিল্পীর জীবনে কত বড় একটা কাল হয়ে দাঁড়ায়।  আমি ছোট বেলা থেকে দেখেছি আমার বাবা বাসা ভাড়া পায় না, এখন আমিও পাই না। আমরা মধ্যবিত্ত মানুষ, খেটে খাওয়া মানুষ আমাদের নেশা করে দিন পার করার অবস্থা নাই, জীবন যুদ্ধে নামতে হয় প্রতিদিন। 
পরের সপ্তাহ থেকে এক এক করে ধরবো। এবং আমি সিরিয়াস, দরকার হলে কোর্টে যাবো। নিয়ম পাশ করাবো, পাবলিক প্ল্যাটফর্মে নেশা নিয়ে ভাব মারা যাবে না। 
আমাকে যারা চিনেন তারা জানেন কোর্টে যেতে হলে আমি এক পা ও পিছপা হবোনা।
I am Super angry. "
ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ১৩০৭২ ৮০৭৫৪০৭
আক্রান্ত ২২৭ ১,৫৭৬,০১১
সুস্থ ২৮০ ১,৫৪০,৫৯৭
মৃত ০২ ২৭,৯৮০

Our Facebook Page