ঢাকা, শনিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২২

এবার বাড়িতে বসেই কাবার কালো পাথর ছোঁয়ার সুযোগ করে দেওয়ার উদ্যোগ সৌদির

বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকেই একজন মুসলমান যাতে নিজের ঘরে বসেই মক্কার কাবা ঘরের কালো পাথরটি ছুঁতে পারেন সেই ব্যবস্থা করছে সৌদি আরব। ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) প্রযুক্তির মাধ্যমে কাবার কালো পাথর ছোঁয়ার সুযোগ করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। ফলে ভিআর হেড সেট লাগিয়ে ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল জগতে প্রবেশ করে কাবার কালো পাথর ছোঁয়ার অনুভুতি পাবেন মুসলমানরা।


সৌদি আরবের মক্কা ও মদীনার দুই পবিত্র মসজিদ বিষয়ক প্রেসিডেন্সির প্রধান শেখ আব্দুল রহমান আল সুদাইস এই ভার্চুয়াল ব্ল্যাক স্টোন উদ্যোগ নিয়েছেন।


এই উদ্যোগের অধীনে ভার্চুয়াল জগতে মক্কার প্রধান তীর্থস্থানগুলোর অনুরুপ স্থান ও বস্তু গড়ে তোলা হবে। ফলে বাড়িতে বসেই ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল জগতে ঢুকে মক্কার সেই পবিত্র স্থানগুলো ভ্রমণ ও বস্তুগুলো স্পর্শ করতে পারবেন মুসলিমরা। এবং এই স্পর্শ বাস্তব না হলেও এর অনুভূতি বাস্তবের মতোই মনে হবে।


এভাবে বাড়িতে বসেই কার্যত কাবাকে দেখা ও স্পর্শ করা যাবে। কাবা ঘরে থাকা কালো পাথরটিকে মুসলমানরা স্বর্গীয় পাথরের একটি ভাঙ্গা টুকরো বলে মনে করে। মুসলমানরা মনে করে ওই কালো পাথর ছুঁলে পাথরটি তাদের সব পাপ শুষে নেয়।


অনুষ্ঠানে বক্তৃতার সময় আল সুদাইস বলেন, ‘আমাদের যেসব মহান ধর্মীয় এবং ঐতিহাসিক স্থান রয়েছে সেগুলোকে আমাদের অবশ্যই ডিজিটালাইজ করতে হবে এবং সর্বাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে সবার সঙ্গে সেসবের যোগাযোগ স্থাপন করিয়ে দিতে হবে’।


স্পর্শ, দৃষ্টি, শ্রবণ, এবং এমনকি ঘ্রানসহ মানুষের ইন্দ্রিয়গুলোর সর্বাধিক সংখ্যায় সিমুলেশন বা অনুকৃতির জন্য একটি ভার্চুয়াল সিমুলেশন পরিবেশ তৈরির গুরুত্বের ওপরও জোর দেন তিনি।


ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে একটি মক্কা বা হজ্বের তীর্থযাত্রার সময় মুসলমানরা কাবার চারপাশে সাতবার ঘুরে আসেন। এবং প্রতিবার ঘুরার সময় তারা কালো পাথরটি স্পর্শ করার চেষ্টা করেন।


সৌদি আরব বেশি কিছু স্মার্ট শহর তৈরি করার লক্ষ্যে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিরিজ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। তার অংশ হিসেবেই ইন্টারনেটের ভার্চুয়াল জগতে কাবা ঘরের এই ডিজিটাল অনুকৃতি তৈরি করার ঘোষণা এল।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ১৮,৯৩৮ ৮০৭৫৪০৭
আক্রান্ত ১৬,০৩৩ ১,৭১৫,৯৯৭
সুস্থ ১,০৯৫ ১,৫৫৮,৯৫৪
মৃত ১৮ ২৮,২৫৬

Our Facebook Page