ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২

ডিআইজি হলেন হারুন অর রশীদ

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার এবং গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জের সাবেক সফল পুলিশ সুপার ও মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)কে উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক পদে পদোন্নতি প্রদান করা হয়েছে। বুধবার (১১ মে) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।


পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) তিনি অত্যন্ত সুনাম ও সফলতার সাথে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিভিন্ন বিভাগে দায়িত্ব পালন করছেন। ইতোপূর্বে অত্যন্ত সফলতার সাথে তিনি নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে পুলিশ সুপারের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি তার যোগ্যতা, দক্ষতা, ত্যাগ ও নিষ্ঠার পুরস্কার হিসেবে তিনবার বাংলাদেশ পুলিশের সর্বোচ্চ পদক বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) ও দুইবার প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম) পদকে ভূষিত হন।


গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে দায়িত্ব পালনকালে সন্ত্রাসী, মাদক কারবারি, ভূমিদস্যু, চাঁদাবাজসহ সকল অপরাধীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন ডিআইজি মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। হকার ও অবৈধ দখল উচ্ছেদসহ তার সকল জনবান্ধব পদক্ষেপ নিয়ে তিনি জনগণের নিকট ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হন। যেকোনো সমস্যার সমাধানের জন্য জনসাধারণ তার কার্যালয়ে সরাসরি গিয়ে তার সাথে কথা বলতেন এবং তিনি সাথে সাথে সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জ অথবা দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে আদেশ দিয়ে সমস্যার সমাধান করে দিতেন। যার ফলস্বরূপ নারায়ণগঞ্জ শহরের বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) এর ছবিসহ ব্যানার দেখা গিয়েছিল। যেখানে তাকে বলিউডি সিনেমার নায়কের সঙ্গে তুলনা করে নারায়ণগঞ্জের জনসাধারণ তাকে উপাধি দেন ‘বাংলার সিংহাম’।


তিনি ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগেও অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে জনসাধারণের জন্য কাজ করেন। তিনি তার চাকরি জীবনের বিভিন্ন সময়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার কারণে স্বার্থান্বেষী মহলের চক্রান্তের শিকার হয়েছেন। কিন্তু তার একনিষ্ঠতা ও সততার ফলস্বরূপ সবসময়ই তিনি স্বার্থান্বেষী মহলের চক্রান্তকে হটিয়ে দিয়ে দেশ ও জনগণের সেবায় নিজেকে প্রমাণিত করেছেন। তারই ফলস্বরূপ আজ এই পদোন্নতি বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গাজীপুরের কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা ও ব্যবসায়ী।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page