ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই, ২০২২

বাঁধ নির্মাণে সীমাহীন দুর্নীতিতে জড়িতদের শাস্তি দাবি বিএনপির

সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোণা জেলার হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণে সীমাহীন দুর্নীতি ও লুটপাট বন্ধ করতে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচার করার দাবি জানিয়েছে বিএনপি। মঙ্গলবার (১৭ মে) নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানায় দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।


লিখিত বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, জাতীয়তাবাদী কৃষকদলের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকসহ কৃষকদলের একটি প্রতিনিধি দল সম্প্রতি সুনামগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্ত হাওরাঞ্চল পরিদর্শন এবং কৃষকদের দুর্দশার চিত্র দেখে এসেছেন। পরে তারা একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছেন।


এতে জানা যায়, চলতি বছরে সুনামগঞ্জ জেলায় বাঁধ নির্মাণ করতে সরকারি বরাদ্দ ছিল ১২২ কোটি। গত পাঁচ বছরে এ টাকার পরিমাণ ছিল ৬২১ কোটি। যা বাঁধ রক্ষায় তেমন কোনো কাজেই আসেনি।


বরং এই বরাদ্দকৃত টাকা ব্যাপক অনিয়ম এবং লুটপাট হয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতা-মন্ত্রী-এমপি, সরকারি কর্মকর্তা ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এই টাকা হরিলুট করেছেন। যে সমস্ত বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে তা এতই দুর্বল যে, মাত্র ২৪ ঘণ্টার পানির চাপ সামলাতে পারেনি।


সরকারি দুর্নীতিরোধ, হাওরের কৃষকদের দুর্দশা লাঘব ও শস্য নিরাপত্তা রক্ষায় কৃষক দলের কিছু সুপারিশ তুলে তিনি বলেন, হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণে সীমাহীন দুর্নীতি এবং লুটপাট বন্ধ করতে হবে। এই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে।


তিনি বলেন, বছর বছর বাঁধ নির্মাণ না করে সিমেন্ট ও বালু দিয়ে তৈরি ব্লক ফেলে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বিনা সুদে বিশেষ ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে। ঋণগ্রস্ত কৃষকের ঋণের সুদ মওকুফ এবং স্বাভাবিক অবস্থা না ফেরা পর্যন্ত ঋণের কিস্তি নেওয়া বন্ধ করতে হবে। হাওর অঞ্চলে শস্য বিমা চালু করতে হবে।


সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক ডাকসুর সাবেক ভিপি আমান উল্লাহ আমান, বিএনপি নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page