ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

একাধিক ফিচার আনল জুম অ্যাপ

২০১১ সালে উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়িক ক্রেতাদের জন্য তৈরি হয়েছিল জুম অ্যাপ। তখন খুব কম মানুষই ব্যবহার করেছেন অ্যাপটি। করোনার সময় অনলাইন ক্লাস শুরু হওয়ার পরই বিশ্বে ব্যাপক পরিচিতি পেল জুম।


এখন বিশ্বের প্রায় সব দেশেই অনলাইন মিটিংয়ের জন্য ব্যবহার হচ্ছে জুম। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে অফিস কিংবা ব্যবসায়িক আলোচনা দূর দুরান্ত থেকে একমাত্র ভরসা এই অ্যাপ। এ কারণেই প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীদের জন্য ঢেলে সজানো হচ্ছে ইন্টারফেস। এসেছে একাধিক নতুন ফিচার। চলুন দেখা যাক এই ফিচারগুলো-


টুইন ফর জুম


এটি জুমের অল ইন ওয়ান রুম ম্যানেজমেন্ট ফিচার। এটির মাধ্যমে যে কোনো মিটিংয়ের হোস্ট ক্রিয়েট করতে পারেন রুম বেসড মিটিং। এর মাধ্যমে অন কাস্টম রুলস, রোটেট বিটুইন টাইমড, ব্যাক টু ব্যাক ব্রেকআউট, চ্যাট অ্যাক্রস রুম ইত্যাদির সুবিধা পেতে পারেন ব্যবহারকারী।


মাইরো


মাইরো অনলাইন হোয়াইট বোর্ড। এর মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের কোলাবোরেটিভ ওয়ার্কস্পেস দেওয়া হয়। এর উদ্দেশ্য হলো প্রতিটি অংশগ্রহণকারী যেন সেই কলে অংশগ্রহণ করতে পারেন, কোক্রিয়েট করতে পারেন এবং রিয়েল টাইম আইডিয়া ক্যাপচার করতে পারেন। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের টুলসের সাহায্য পাওয়া যাবে।


জুম ব্যাকগ্রাউন্ড রুমস


এটি জুমের একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ফিচার। এর মাধ্যমে জুম কলের অংশগ্রহণকারীরা ছোট ছোট গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করতে পারবেন।


কোড অ্যাপ ফর জুম


এই ফিচারের মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের বলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এজন্য তাদের আলাদা করে আর কোনো ট্যাব ওপেন করতে হবে না। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে নিয়ে আসা হয়েছে একটি নতুন কোড #askwhy। এর মাধ্যমে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী একে অপরের সম্পর্কে কিছু জানলে তা বাকিদের জানাতে পারবেন।


জুম ওয়েলো


জুম ওয়েলোর মাধ্যমে রিক্রিয়েট করা হয়েছে কোলাবোরেটিভ স্পেস। এর মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারী একে অপরকে দেখতে পাবেন এবং সেই কথাবার্তার মধ্যেই মিটিং থেকে বেরিয়ে যেতে পারবেন প্রয়োজন মতো।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page