ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ঢাকায় হীড বাংলাদেশের উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের এককালীন উপবৃত্তি প্রদান

হীড বাংলাদেশ ঢাকা উত্তর এলাকা মাইক্রোফাইন্যান্স কর্মসূচির আওতায় সমিতির সদস্যগণের ছেলে মেয়েদের ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৪ ও ৫ প্রাপ্ত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা ও এককালীন উপবৃত্তি প্রদান করা হয়। শুক্রবার (৩ জুন) সকালে রাজধানীর মিরপুর হীড বাংলাদেশের প্রধান কার্যালয়ে এঅনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।


নির্বাহি পরিচালক আনোয়ার হোসেন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,ভাইস চেয়ারম্যান রেভাঃ বায়রন পি,বনিক, ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৪ ও ৫ প্রাপ্ত মেধাবী ৯৭ জন শিক্ষার্থীকে নগদ অর্থ তুলে দেন। জিপিএ পাঁচ প্রাপ্ত ছাত্র ছাত্রী দের ৫ হাজার এবং জিপিএ চার প্রাপ্তদের ৪ হাজার টাকা করে মোট ৩ লক্ষ ৮৭ হাজার টাকা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রেভাঃ বায়রন পি,বনিক ভাইস চেয়ারম্যান, হীড বাংলাদেশ।


বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মি.স্বপন হালদার, অ্যাড. জর্জ স্টিফেন দাস, মিসেস মমতা অধিকারী,সদস্য-হীড জেনারেল বোর্ড, হীড বাংলাদেশ। হীড বাংলাদেশ নির্বাহী পরিচালক আনোয়ার হোসেন বলেন, “আমি একটি ঘোষণা দিতে চাই বোর্ড মেম্বারদের সম্মানার্থে হীড বাংলাদেশ পরিবারের মধ্যে যদি কেউ এমবিবিএস অথবা ইঞ্জিনিয়ারিং সরকারি কলেজে ভর্তির সুযোগ পায় তার পড়া সোনার সব দায় দায়িত্ব আমরা গ্রহন করবো “আর এটা ধারাবাহিক ভাবে চলবে”।


তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমাদের প্রত্যাশা তোমাদের কাছে অনেক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু  স্বপ্ন দেখেছিলেন একটি সোনার বাংলা, আর সেই সোনার বাংলা গড়তে হলে সোনার মানুষ দরকার, আর সেই সোনার মানুষ হতে পারো তোমরা। “তোমরা চেষ্টা করলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারো”। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সভানেত্রী মাহিনূর,শিক্ষার্থী সুমাইয়া,নকীবুল ইসলাম ও তানজিম প্রমূখ।


আরো উপস্থিত ছিলেন, অপারেশন ডাইরেক্টর ডা. সুবীর খিয়াং বাবু ,ডাইরেক্টর নিখিল চন্দ্র সাহা, ম্যানেজার অ্যাডমিনিস্ট্রেশন আব্দুছ ছালাম হীড বাংলাদেশ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন এরিয়া ম্যানেজার মো.দীল ইসলাম ‘ঢাকা উত্তর এলাকা’ হীড বাংলাদেশ। হীড বাংলাদেশ ঢাকা উত্তর এলাকার সকল স্টাফ উপস্থিত ছিলেন।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page