ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২

হবিগঞ্জে যুবলীগ নেতা বাবা প্রিন্স ও পুলিশ হত্যা চাঞ্চল্য প্রসঙ্গ

জেলা হবিগঞ্জ সদর গত ১৮ই সেপ্টেম্বার ২০১৮ইং বিকাল আনুমানিক ১৭.০০/১৮.০০ঘটিকায় বিএনপির নেতা এ্যাডঃ নাজমুল হকের হত্যার প্রতিবাদে সদর সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গনে জনসভা চলাকালিন সরকারী বাহিনীর ভয়াবহ মুখামুখী সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। উল্লেখ্য যে বানিয়াচং উপজেলায় সুজাতপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা ও যুবলীগ নেতা বাবা প্রিন্স(৩৭),পিং-আব্দুল বাকির পূত্র দলবলসহ অত্র/বোমা নিয়ে উক্ত সভায় হামলা চালালে উভয়ের মধ্যে ভয়াবহ মারামারি দঙ্গাফসাদ সংঘঠিত হয়। কর্তব্যরত পুলিশ ফোর্স সরকারী দলীয় সমর্থকদের পক্ষনিয়ে প্রতিপক্ষকে বাধা/প্রতিহত করলে উভয়পক্ষ গােলাগুলি ও বােমা বিস্ফোরন ঘটায়,ফলে বাবা প্রিন্স ও কন্সটেবল বনিক শীলসহ উভয় দলের ১১/১২জন গুরুতর আহত হয়ে ঘটনা স্থলে লুটিয়ে পড়ে।লোকজন তাহাদের উদ্ধার ও দ্রুত সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসারত প্রিন্স রাত ১৯.৪৫ ঘটিকায় মৃত্যু হয় এবং কন্সটেবল ভাের ৫.১৫ ঘটিকায় মৃত্যুবরন করে। এই ঘটনাটি শহরে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি ঘটায় এবং পুলিশ ফোর্স বিএনপি ও বিরােধী দলীয় নেতাকর্মিদের গ্রেফতার করতে বাড়ীঘরে হামলা/নির্যাতন চালাচ্ছে।প্রতিনিধি থানায় যােগাযােগে কর্তব্যরত পুলিশ পরিদর্শক এস.আই.আলআমিন অবগত করেন যে-বর্বরচিত হামলা ও হত্যার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ বাদী হয়ে থানায় অদ্য সকালে প্রত্যক্ষদর্শী স্বাক্ষী প্রমানের উপস্থিতিতে প্রাথমিক ৯ জনকে অপরাধী চিহ্নিতসহ অজ্ঞাত আরাে ৭জনের বিরুদ্ধে হত্যা ও সন্ত্রাস বিরােধী দ্রুতবিচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার কৃত ৪জন আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানার নিয়ন্ত্রনে বন্দি করেছেন।এই হত্যাকান্ডে এজাহার ভুক্ত সন্দেহাতীত ৯জন আসামীর মধ্যে বিএনপি যুবদল ও ছাত্রদল নেতাকর্মি ১।মােঃ মনির হােসেন পিং-তাজুল হােসেন,২।মােঃ সুমোন মিয়া, পিং-জাফর মিয়া,৩।জহির উদ্দিন,পিং-আব্দুল মাজিদ,৪।মােঃ রানা হােসেন,পিং-প্রঃ মােঃ ছামসুল মিয়া,৫।মােঃ নয়ন আহমেদ,পিং-হাজী কয়েছ আহমেদ ,৬।মােঃ আশিক চেীধুরী,পিং-মোঃফারুক মিয়া চৌধুরী,৭।মােঃ নাদের মিয়া,পিং-মােঃকাউসার মিয়া, ৮।মােঃ জসিম চৌধুরী,পিং-মৃত মােঃ হারিছ চৌধুরী, ৯।পারভেজ চৌধুরী,পিং-হারুন চৌধুরীগনের মধ্যে গ্রেফতারকৃত ৩। জহির উদ্দিন, ৪। মােঃ রানা হােসেন, ৭।মােঃ নাদের মিয়া,৮। মােঃজসিম চৌধুরীগন পুলিশ হেফাজতে বন্দি আছে। এই ঘটনার ২জন মৃত ভিকটিমের লাশ মামলার দায়ের হওয়াপর পরিবারবর্গকে হস্থান্তর করা হয়েছে এবং থানা কর্তৃপক্ষ পলাতকদের গ্রেফতার প্রক্রিয়া অব্যাহত রেখেছেন এবং মামলাটির সুক্ষ তদন্তর কার্যক্রম থানার ওসি স্বয়ং নিজে পরিচালনা করার আশ্বাস জানিয়েছেন।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page