ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২

পঞ্চগড়ের করতোয়া নদীতে নৌকাডুবিতে নিহত বেড়ে ৩৯, নিখোঁজ অর্ধশত

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় আজ আরও ১৪টি লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ নিয়ে মোট ৩৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।


আজ সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে করতোয়ায় ৩টি, দিনাজপুরের খানসামার আত্রাই নদীতে একটি এবং আরও বিভিন্ন স্থানে মরদেহগুলো ভেসে ওঠে। পরে স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানালে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধার করা মরদেহগুলোর নাম-পরিচয় জানা যায়নি।


বিষয়টি নিশ্চিত করেন দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন। তবে উদ্ধারকৃত লাশগুলোর পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।


এর আগে রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলাধীন মাড়েয়া বামন হাট ইউনিয়ন এর করতোয়া নদীতে নৌকাডুবির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পঞ্চগড়-২ আসনের মাননীয় সাংসদ ও রেলপথ মন্ত্রী অ্যাড. নুরুল ইসলাম সুজন।


এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিভাগীয় কমিশনার, রংপুর, মো. সাবিরুল ইসলাম, অ্যাডিশনাল আইজি, রংপুর, মো. মিজানুর রহমান, পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শফিকুল ইসলাম, বোদা উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফারুক আলম টবিসহ প্রমুখ।


নৌকাডুবিতে মৃত্যুর ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায়কে প্রধান করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। তদন্ত প্রতিবেদন আগামী তিন দিনের মধ্যে দিতে হবে।


জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।


জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুম থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এছাড়া দুর্ঘটনায় মৃত ২৫ জনের নাম ও পরিচয় জানানো হয়েছে। এদের মধ্যে ১২ নারী, আট শিশু ও পাঁচ পুরুষ রয়েছেন। তাদের বাড়ি পঞ্চগড় জেলার বোদা, দেবীগঞ্জ ও ঠাকুরগাঁও জেলায়।


রাতে কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়, এখন পর্যন্ত নৌকাডুবির ঘটনায় ৬৩ জন নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের খোঁজে নদীতে কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। এখন পর্যন্ত তিনটি ইউনিট উদ্ধার তৎপরতা পরিচালনা করছে বলে জানায় কন্ট্রোল রুম।


এর আগে রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকালে বোদা উপজেলা মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাট এলাকা মহালয়া উপলক্ষে একটি ধর্মসভায় যোগ দিতে উপজেলার বড়শশী ইউনিয়নে বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন তারা। করতোয়া নদীতে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের কারণে নৌকাটি ডুবে যায়।


নৌকাডুবিতে নিহতদের মধ্যে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে; তারা হলেন- শ্যামলী রানী (১৪), লক্ষ্মী রানী (২৫), অমলকৃষ্ণ (৩৫), শোভারানী (২৭), দীপঙ্কর (৩), পিয়ন্ত (২.৫), রুপালী ওরফে খুকিরানী (৩৫), প্রমীলা রানী (৫৫), ধনবালা (৬০), সুচিত্রা রানী (৫৭), ফাল্গুনী (৫০), প্রমীলা দেবী (৭০), জ্যোতিষ চন্দ্র (৫৫), তারা রানী (২৪), সোনেকা রানী (৬০), সফলতা রানী (৪০), হাতেম আলী (৭০), বিলাস চন্দ্র (৪৫), শ্যামলী রানী ওরফে শিমুলি, উশাশী (০৮), তনুশ্রী (০৫), শ্রেয়সী, প্রিয়ন্তী (০৮), বিঞ্চু (৩.৫), ব্রজেন্দ্রনাথ (৫৫)।


বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোলেমান আলী বলেন, নৌকাডুবিতে এখন পর্যন্ত ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। উদ্ধার কার্যক্রম চলছে। লাশ শনাক্তের প্রক্রিয়া চলছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মৃতদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।


পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, নৌকাটিতে দ্বিগুণ যাত্রী ছিল। তবে ফায়ার সার্ভিসের অভিযান শেষ না হলে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা জানানো যাচ্ছে না। এ পর্যন্ত যাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিবারকে ২০ হাজার করে এবং আহত প্রত্যেককে ১০ হাজার করে টাকা দেওয়া হবে।

ads
ads

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ৩৪০৬৭ ২৯৩২৭৬
আক্রান্ত ৩৬৮ ১,৯৪৬,৭৩৭
সুস্থ ৪,০১৮ ১,৮৩৯,৯৯৮
মৃত ১৩ ২৯,০৭৭

Our Facebook Page