ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০

সারা দেশে ইন্টারনেট-ডিশ লাইন বন্ধের হুঁশিয়ারি

বিকল্প ব্যবস্থা না করে রাজধানীতে ঝুলন্ত তার অপসারণ অব্যাহত রাখলে ১৮ অক্টোবর থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সারাদেশে ইন্টারনেট ও কেবল টিভি সেবা বন্ধের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন এসব সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা। ১৭ অক্টোবরের মধ্যে চলমান সমস্যা সমাধানের সময়সীমাও বেধে দিয়েছেন সংগঠন দু'টির নেতারা।সোমবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই হুঁশিয়ারি দিয়ে ৫ দফা দাবি তুলে ধরেন তারা।  


নগরীর সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও ফুটপাতে পথচারীদের চলাচলে ঝুঁকি এড়াতে ১লা অক্টোবর থেকে ঝুলন্ত তার অপসারণ শুরু করেছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এতে করোনাকালে নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট ও টেলিভিশন সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কয়েক লাখ গ্রাহক। সেবাদাতারা বলছে, চলমান অভিযানে শুধু দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে এলাকাতেই তার বাবদ ২০ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।


সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা অভিযোগ করেন বিকল্প ব্যবস্থা না করেই সিটি করপোরেশন একতরফাভাবে তার অপসারণ করছে। স্থায়ী কেবল ব্যবস্থার বিষয়ে কোন পদক্ষেপ না নিয়ে আইএসপি প্রতিষ্ঠানের জন্য উল্টো ২৫ লাখ টাকা বাৎসরিক নিবন্ধন ফি নির্ধারণ করেছে; যা অযৌক্তিক। সমস্যার যৌক্তিক সমাধানে সিটি করপোরেশনকে একটি তদন্ত কমিটি গঠনেরও পরামর্শ দেন তারা।


এ অবস্থায় চলমান সমস্যা সমাধান না হলে ১৮ অক্টোবর থেকে প্রতিদিন তিন ঘণ্টা করে ইন্টারনেট ও ডিশ সেবা বন্ধের হমকি দেন তারা। সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি বাসাবাড়িতে ইন্টারনেট ও ডিশ সেবার মুল্য নির্ধারণসহ পাচ দফা দাবি তুলে ধরেন কেবল টিভি ও ইন্টারনেট সেবাদাতারা।


   দাবিগুলো:

১. লাস্ট মাইল কেবলের স্থায়ী সমাধান না করা পর্যন্ত কোনো ঝুলন্ত তার অপসারণ করা যাবে না।

২. আইএসপিএবি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন এবং সিটি করপোরেশন সমন্বয়ে লাস্ট মাইল কেবল স্থাপন করা হয়েছে কি-না তা নিশ্চিতকরণে একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিনে তদন্তের ব্যবস্থা করতে হবে। 

৩. সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাসা-বাড়ি ও ব্যাংকসহ সকল পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবার মূল্য নির্ধারণ করতে হবে।


৪. গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবা স্বল্পমূল্যে দেয়ার লক্ষ্যে এনটিটিএন'র মূল্য সরকার কর্তৃক নির্ধারণ করতে হবে।


৫. গ্রাহক পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন সেবা প্রদানে নিশ্চয়তার পক্ষে এনটিটিএনগুলোর সার্বিক সক্ষমতা আছে কি-না তা যাচাইয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।


করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ১৪৯৫৮ ২২২১৩৬৯
আক্রান্ত ১৬৯৬ ৩৯৪৮২৭
সুস্থ ১৬৮৭ ৩১০৫৩২
মৃত ২৪ ৫৭৪৭

Prayer Times

Calender

Printcal.net Calendar Widget

Our Facebook Page