ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ, ২০২১

দেশে এসেছে আরও ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দ্বিতীয় চালানে দেশে এসেছে আরও ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টা ২২ মিনিটের দিকে সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কোভিশিল্ডের এই টিকার চালানটি ভারতের স্পাইসজেট এসজি-০০৬৩ ফ্লাইটযোগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।


পরে রাতে বিমানবন্দরের ৮ নম্বর গেটে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ৫টি বিশেষ ফ্রিজার কাভার্ডভ্যান এসে পৌঁছায়। এরপর একে একে এই ভ্যানগুলো ৮ নম্বর গেট দিয়ে বিমানবন্দরের রানওয়েতে প্রবেশ করে।


স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. আবু নাঈম মোহাম্মদ সোহেল জানান, স্পাইস জেটের একটি ফ্লাইটে অন্যান্য মালামালের সঙ্গে টিকার চালানও এসেছে। এই ভ্যাকসিন এখান থেকে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ওয়ারহাউজে নেওয়া হচ্ছে। সেখান থেকে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ছাড়পত্র পাওয়ার পরে চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হবে।


এ নিয়ে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা ভাইরাসের টিকার ৯০ লাখ ডোজ বাংলাদেশে এসেছে। সেরাম ইনস্টিটিউটের সাথে চুক্তি অনুযায়ী প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে ছয় মাসে তিন কোটি ডোজ টিকা দেওয়ার কথা।


এর আগে ভারত সরকারের উপহার দেওয়া ২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা আসে বাংলাদেশে। গত ২১ জানুয়ারি বেলা ১১টা ২০ মিনিটে এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় টিকার প্রথম চালান।

করোনা পরিস্থিতি বাংলাদেশ

২৪ ঘণ্টায় মোট
পরীক্ষা ১৬৪১৪ ৪০৮৯৪৩৬
আক্রান্ত ৬১৪ ৫৪৭৯৩০
সুস্থ ৯৩৬ ৪৯৯৬২৭
মৃত ০৫ ৮৪২৮

Our Facebook Page